শশী লজ- Shoshi Lodge

November 12, 2023 0 Comments

সাদা মার্বেল মূর্তি, ভেনাস, ২০০ শতাব্দীরও বেশি সময় ধরে ‘শশী লজের’ বাগানে দাঁড়িয়ে আছে। ময়মনসিংহ শহরের কেন্দ্রস্থলে অবস্থিত মহারাজা শশীকান্ত আচার্যের প্রাসাদের নাম শশী লজ। স্থানীয়ভাবে এটি ময়মনসিংহ রাজবাড়ী নামে পরিচিত।

এই লজ থেকে প্রায় একশ গজ দূরে পুরাতন ব্রহ্মপুত্র নদ অবস্থিত। জমিদার মহারাজা সূর্যকন্ঠ আচার্য ১৯ শতকের দ্বিতীয়ার্ধে ‘ক্রিস্টাল প্যালেস’ নামে একটি বিশাল প্রাসাদ নির্মাণ করেন, যা ‘রংমহল’ নামেও পরিচিত।

১৮৯৭ সালের ১২ জুন, বিশাল ভারতীয় ভূমিকম্পে প্রাসাদটি ধ্বংস হয়ে যায়। বিংশ শতাব্দীর শুরুতে, মহারাজা সূর্যকান্ত আচার্য বাইজেন্টাইনের একই শৈলীতে শশী লজ নির্মাণ শুরু করেন। ভবনের কাজ শেষ হওয়ার আগেই মারা যান সূর্যকান্ত আচার্য।

সূর্যকান্তের দত্তক পুত্র শশীকান্ত আচার্য  ১৯০৫ সালে ভবনটির নির্মাণ কাজ সম্পন্ন করেন। তাঁর নামানুসারে ভবনটির নামকরণ করা হয় ‘শশী লজ’। মহারাজা শশীকান্ত ১৯১১ সালে শশী লজের সৌন্দর্য বৃদ্ধির জন্য কিছু সংস্কার করেছিলেন। শশী লজ ১৮ টি বড় কক্ষ নিয়ে গঠিত। বারান্দা এবং করিডোর সহ ভবনটি  ৫০,০০০ বর্গফুটের কম হবে না। পুরো ভবনের মেঝে মার্বেল পাথর দিয়ে তৈরি। ছাদে খোদাই করা লোহার সিঁড়ি আছে। পুরো বিল্ডিংয়ে পানির লাইন আছে। ভবনের ভেতরে একটি আধুনিক টয়লেটও রয়েছে। যেহেতু ভবনটি শিক্ষক প্রশিক্ষণ কেন্দ্র হিসেবে ব্যবহৃত হয়, তাই এর বেশির ভাগই এখনো ধ্বংস হয়নি।

প্রাসাদের পিছনে একটি পুকুর আছে। বিশ্রাম নেওয়ার জন্য পুকুরের পাশে একটি ছোট দোতলা ভবন রয়েছে। সিঁড়ি অনেক বৈশিষ্ট্য আছে. প্রতিটি তলায় দুই পাশে দুটি টয়লেট বসানো। কিন্তু কমোডগুলো আর পাওয়া যাচ্ছে না। কিন্তু এখনো পাইপ, পানির লাইন, কমোড লাইন আছে।

পুকুরের ভিতরে দুটি গোলাকার পিলার রয়েছে। মার্বেল পাথরে মোড়ানো স্তম্ভটি একসময় বসার জন্য ব্যবহৃত হত। পুকুরের পাশে কাপড় পরিবর্তনের ঘর আছে। লজের চারপাশে, গাছগুলি এখনও কিছু বিবরণের সাক্ষী হিসাবে দাঁড়িয়ে আছে। সীমানা প্রাচীরটি ১০০ বছরেরও বেশি আগে নির্মিত হয়েছিল।

কথিত আছে, এক সময় ‘মুক্তাগাছার মন্ডা’ শুধুমাত্র মহারাজার জন্য তৈরি করা হতো। রাজারা তাদের ছাড়া অন্যদের ‘মন্ডা’ খেতে দিতেন না। অতিরিক্ত মন্ডা দুটি হাতি, শঙ্খ এবং সম্ভুকে খাওয়ানো হয়েছিল। শংখ ও সম্ভুর কঙ্কালের কিছু অংশ শশী লজ সংলগ্ন মোমেনশাহী জাদুঘরে সংরক্ষিত আছে।

লজের সামনে রয়েছে নানা প্রজাতির সাজে সজ্জিত বাগান। ঝর্ণা আছে। এর মধ্যে একটি স্নানরত গ্রীক দেবীর ভাস্কর্য রয়েছে। বাগানে নানা রকমের ফুল।

শশী লজ ১৯৫২ সাল থেকে মহিলা শিক্ষক প্রশিক্ষণ কেন্দ্র হিসেবে ব্যবহৃত হচ্ছে। ভবনটি পাঁচ বছর আগে প্রত্নতত্ত্ব অধিদপ্তর অধিগ্রহণ করে। বর্তমানে সংস্কারের কাজ চলছে।

ময়মনসিংহ মহিলা টিচার্স ট্রেনিং কলেজ  ১৯৫২ সালে এই প্রাসাদে স্থাপিত হয়। প্রাসাদের মূল অংশটি কলেজের অধ্যক্ষের কার্যালয় ও কার্যালয় হিসাবে ব্যবহৃত হয়। নব-প্রতিষ্ঠিত ভবনে ক্লাস নেওয়া হয়।

এ পর্যন্ত প্রায় ৩০০ নারী বিভিন্ন কোর্সে প্রশিক্ষণ নিচ্ছেন। অনেকেই কলেজের মধ্যে অবস্থিত হোস্টেলে থাকেন। ২০১৫ সালে, প্রত্নতত্ত্ব বিভাগ জাদুঘর স্থাপনের জন্য ভবনটির নিয়ন্ত্রণ নেয়। এখন কলেজ ও লজের সীমানা নির্ধারণে প্রত্নতত্ত্ব বিভাগ কাজ করছে।

কীভাবে যাবেন?

ঢাকা থেকে ময়মনসিংহ যেতে আড়াই থেকে তিন ঘণ্টা সময় লাগে। মাসাকান্দা বাস স্ট্যান্ডে নেমে অটো অথবা রিকশায় চড়ে শশী লজ ঘুরে আসতে পারবেন। রিক্সা ভাড়া নিবে ৩০-৪০ টাকা।

ঢাকা মহাখালী বাস স্ট্যান্ড থেকে কয়েটি বাস ময়মনসিংহ যায়। ভাড়া ২৫০-৩০০ টাকা। যোগাযোগের সুবিধার্থে কয়েটি বাসের যোগাযোগের নাম্বার দিয়েদিলাম।

এনা পরিবহন-01924-764571

আলম এশিয়া-01711-806051

ড্রিমল্যান্ড-01715910870

কোথায় থাকবেন?

ময়মনসিংহ শহরে বিভিন্ন মানের হোটেল আছে সেখান থেকে আপনার জন্য ভাল হোটেল বেছে নিতে পারেন। তাছাড়া ভরসা করতে পারেন ময়মনসিংহের আমির ইন্টারন্যাশনাল অথবা হোটেল মুস্তাফিজ এর উপর এগুলো মোটামুটি ভালো। হোটেল মুস্তাফিজ ইন্টারন্যাশনাল একদম শশিলজের সামনেই।

কোথায় খাবেন?

ময়মনসিংহ শহরে প্রেসক্লাব ক্যান্টিনের মোরগ পোলাওয়ের স্বাধ চেখে দেখতে পারেন আশাকরি ভালই লাগবে। এছাড়া ভাল মানের খাবারের জন্য হোটেল ধানসিঁড়ি ও হোটেল সারিন্দার বেশ সুনাম রয়েছে আপনি চাইলে শশি লজের পাশে যেকোন হোটেল থেকে খেয়ে নিতে পারবেন।

পরামর্শ

বাংলাদেশের একজন সচেতন নাগরিক হিসেবে আমাদের উচিত বাংলাদেশের এসকল পর্যটন কেন্দ্রে ঘুরতে গিয়ে এখানে ওখানে ময়লা ফেলে একে দূষিত না করা, সবাই যদি ময়লা ফেলে তাহলে যায়গাটি নষ্ট হয়ে যাবে। এটি আমাদের পর্যটন অঞ্চলগুলোর সৌন্দর্য যেমন নষ্ট করে তেমনি বিদেশী পর্যটকদেরকেও নিরুৎসাহিত করে এদেশ ভ্রমণ করতে তাই আমাদের সকলের দায়িত্ব এই সকল পর্যটন কেন্দ্রসমূহকে পরিচ্ছন্ন রেখে বিশ্বের দরবারে বাংলাদেশের পর্যটনশিল্পকে আরও প্রস্ফুটিত করা।

আরো পড়ুন

মুক্তাগাছা জমিদার বাড়ি

খৈয়াছড়া জলপ্রতাপ

বিরিশিরি চীনামাটির পাহাড়

Leave a Comment

Your email address will not be published.

Select the fields to be shown. Others will be hidden. Drag and drop to rearrange the order.
  • Image
  • SKU
  • Rating
  • Price
  • Stock
  • Availability
  • Add to cart
  • Description
  • Content
  • Weight
  • Dimensions
  • Additional information
Click outside to hide the comparison bar
Compare